সাপ্তাহিক রম্য সাহিত্যে ইন্দ্রাণী ঘোষ (পর্ব – ১২)

দাশুর ঠাকুর দেখা

দাশু ঠাকুর দেখে বৈ কি| শরতের আকাশে সোনা রোদটি তাঁর চাই| পুজোর দিন সকালে, ইশকুলের শয়তান গুলোকে তার বেশি মনে পড়ে|

পুজোর আগে নিম্নচাপ চোখ রাঙাল । দাশু হাওয়া অপিসে খবর নিতে গেল । হাওয়া অপিস বললে আকাশ সোনা রঙে মেখে থাকবে ।
দাশু জড়ির জোববাখানা চাপিয়ে এসে পড়ল | দাশুদের খানাপিনা জবর হল । ফুলকো লুচি, ডিম কষা, সাদা আলুর তরকারী দাশুদের খানাপিনা জবর হল । ফুলকো লুচি, ডিম কষা, ইংরেজদের ব্রেকফাস্ট পাউরুটি মাখন, ডিমের অমলেট, সব্জি সেদ্ধর সাথে মাংস সেদ্ধ তাও ছিল । লেকের পাড়ে হাওয়া খেয়ে, প্রচূর বাজে বকে
দাশুদের জনা ২৫ শের কথায় কথায় দুপুর গড়াল |
পুজোর ৩য় দিনে দাশু বেরোল বৌ বগলে ঠাকুর দেখতে| জোববা ঘামে ভিজে শপশপে| নাগরায় পায়ে পড়ল ফোসকা|
বরফকলের জল খেয়ে, হিসহিসানো ঝাল ফুচকার জলুনি সয়ে, আধ খাওয়া চিপসের মোড়কের পাহাড় পেরিয়ে দাশু ঘুরে বেড়াল সারা কলকাতা| কোথাও সাবকি, কোথাও অতি আধুনিক মা দুগগা কে দেখে দাশুর যখন চোখ ছানাবড়া,ভোরবেলা দাশুর খেয়াল হল, তঁার বৌ পাশে নেই|

চলবে…….

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!