|| কালির আঁচড় পাতা ভরে কালী মেয়ে এলো ঘরে || T3 বিশেষ সংখ্যায় আমিনুল ইসলাম

তিনটে অ-গ্রন্থিত কবিতা


একটা ফুলমুন ও অর্ধবৃত্ত সূর্যের দিকে চোখের উপদ্রব…
কেউ বা কারা যেন অন্ধকার ছড়িয়ে দিতে চায়!
ওদের পায়ে চাকা~
পায়ে পিষ্ট ঘরদোর। রক্তের ফোটা। জল-জঙ্গল। সমস্ত তছনছ।

কেউ জানে না, জানতে নেই, জানতে নিষেধ এবং জানিয়ে দেওয়াও অপরাধ…

অপরাধের ঘুম ভেঙে
দায়িত্ব নিল শান্তি ও শৃঙ্খলাদের ঘুম পাড়িয়ে রাখার…

আর এখন –
শিল্পির তুলি শব্দ শোনালো~
কবি অক্ষর দিয়ে সূর্য তর্পণ আঁকলেন
অভিনেতা মূকাভিনয়ে জ্বেলে ধরলেন আগুন ~


বুকের উপর খোদাই হচ্ছে মরুভূমি
ঠোঁটে সাপের ছোবল
ভোটবাক্সে পোড়া রুটি
আর মনের ভিজে জমিন
দু-একটি রুটি কৃষ্ণের আঙুলে ঘুর্নায়মান

প্রলুব্ধতা ~
ক্যাডবেরি অথবা মিছরির ছুরির শানদেওয়া রাষ্ট্রে
মা আঁচল পেতেছেন

আর যোনি বেয়ে হেঁটে চলছে নদী

১আকাশ তৃষ্ণায় ক্লান্ত তুলি
বিছানায় এলিয়ে দিয়েছে রোদ
চুলের সখ্য এলোমেলো বাতাস~

জানালায় অবাক শব্দের অভিনন্দন
কিছু পায়চারি মুহূর্তের চেয়ার তখন~

টেবিলে গালিচার দুপুর
তোমার ঠোঁট অলসতা ভাসিয়ে দিচ্ছে যখন
১টা বোতলে সমুদ্রের স্থির মন্থন
ভ্রু, চিবুক ধীরে ধীরে স্তন বেয়ে নেমে যাচ্ছে দৃশ্য পরম্পরায়~

নির্বাক অপেক্ষায়, উড়ন্ত মৌমাছির চোখের গুঞ্জন

এবং মৃদুমন্দ বাতাসে সাতরং ওড়নার প্রজ্ঞাপন

Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!