প্রবাসী মেলবন্ধনে কল্লোল নন্দী (আটলান্টা) (পর্ব – ১৩)

0
25
Spread the love

দৈনন্দিন

একটা হাঁচি সামলে পার্থ বলল, এই পলেন সিজিনে আমার খুব এলার্জি হয়। জানােই তাে। এইসময়ে গানটা ঠিক … একটা ন্যাপকিন পার্থর দিকে এগিয়ে দিয়ে মুরলি বলল, বুঝলাম। সেইজন্যে চারিদিকে এত কবিতা উৎসব।
তারপর আকাশের দিকে তাকিয়ে বলল, “প্রতিটি দিনের নতুন জীবাণু আবার স্থাপিত হয়।” “সময়ের কাছে এসে সাক্ষ্য দিয়ে চলে যেতে হয়। কী কাজ করেছি আর কী কথা ভেবেছি।”

Spread the love