কর্ণফুলির গল্প বলা সাপ্তাহিক ধারাবাহিকে সৈয়দ মিজানুর রহমান (পর্ব – ২৬)

0
39
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

অনন্ত – অন্তরা

কী সাংঘাতিক!! আপনি এই সব কী বললেন বুঝে a এটা অন্যায় সেখানে আপনি পবিত্রতা কোথায় পেলেন?
হ্যাঁ পবিত্রতা আছে, আমার ভালবাসা হৃদয় সর্বস্ব যেহেতু আপনি বিবাহিতা সেহেতু আপনার সঙ্গে বাস্তবতায় আমার আর কোন সম্পর্ক রইল না । আমার স্বপ্ন আমার হৃদয়ের সংসার শুধু সে সংসারে কিছু শব্দের যোগ হলো কাল্পনিকতার অবসান ঘটিয়ে ।
পারবেন এই শব্দগুলি নিয়ে বেঁচে থাকতে? নাকি সুন্দরী পেলে শব্দ ভুলে গিয়ে বিয়ে করে শব্দ ভোলার প্রায়শ্চিত্ত করবেন? হি হি হি সব পুরুষ এক আপনিও তার ব্যতিক্রম নন ।
সামান্য পরিবর্তনে আর কী ব্যতিক্রম বলবো নিজেকে , তবে নারীর ক্ষেত্রে শুধু অন্যরকম ব্যতিক্রম বাকী কমবেশী সব ভালো মন্দ মিলিয়ে আমি এক পুরুষ বলতে পারেন ।
আচ্ছা একটা কথা উত্তর দিবেন?
বলুন-
যদি আমি আপনাকে বিয়ে করতে চাই তা হলে আপনি কি আমাকে বিয়ে করবেন?
অসম্ভব এটা আমি করতে পারবো না ।
কেন আপনি না আমাকে ভালবাসেন? তাহলে কেন বিয়ে করবেন না ?
আপনি বিবাহিতা না হলে বিয়ে অবশ্যই করতে চাইতাম ।
বিয়ে করবেন না অথচ ভালবাসবেন তাহলে মতলবটা কী ?
আমার ভালবাসা আজকের পর থেকে আপনার কাছে আর কোনদিন পৌছাবেন না । এটাই মতলবের উত্তর ।
আপনি আপনার সংসারের সবাইকে নিয়ে সুখে থাকুন সেই দোয়া করি । আমি এখন যাব ।আপনি ভালো থাকবেন । শুভ রাত্রি ।
শুভ রাত্রি ।
হঠাৎ করে কাঁপিয়ে জ্বর অনুভব করছি, ভীষণ খারাপ লাগছে মনে হচ্ছে রুম নিয়ে ঘুরছি আবার বমি বমি লাগছে । ফ্যান লাইট অফ করে দিয়ে শুয়ে পড়লাম । প্রচন্ড মাথা ব্যথা শরীর কাঁপিয়ে চোখ দুটি ফেটে যাচ্ছে নোনা জল গড়িয়ে । এক সেকেন্ডে স্বপ্ন ভেঙ্গে এই ভাবে বুঝি চুরমার হয় ? বিড়বিড় করতে করতে কখন কিভাবে বেহুঁশ হয়ে পড়েছিলাম পরের দিন সকাল দশটায় সন্ধ্যা এসে প্রচন্ড ডাকাডাকির পর আমি হুঁশ ফিরে পাই , দরজা খুলে দিয়ে আবার যেয়ে শুয়ে পড়ি । সন্ধ্যা রুমে ঢুকে আমার কপালে হাত রাখেই বেরিয়ে পড়ে, কিছুক্ষণ পর ডাক্ততার নিয়ে বাসায় আসে । ডাক্তার জ্বর মেপে দেখে তখনও ১০২ ডিগ্রী! প্রেসক্রিপশন লিখে দিলো । ডাক্ততার চলে গেল কাজের মহিলা বাসায় ঢুকলেন ।
অনন্ত তুই কী খাবি আমি তোর জন্য খাবার নিয়ে আসি সাথে তোর ঔষধ ঠিক আছে ?
অনন্ত কিছু বলল না ।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •