।। ত্রিতাপহারিণী ২০২০।। T3 শারদ সংখ্যায় আনোয়ার রশীদ সাগর

    0
    18
    Spread the love
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  

    শরতের তিনটি পদাবলী

    শরত

    বিবর্ণ স্মৃতিগুলো নীলাকাশের বুক চিরে ছেঁড়া ছেঁড়া মেঘ হয়ে ভেসে যায়।
    আকাশের চোখগুলো সন্ধ্যাতারা হয়ে উঁকি দেয় সবুজে সবুজে,
    শরত-বরষায় মগ্ন উপন্যাসে শিউলী ফোটে আঁধারে আঁধারে;
    আবছা ছায়ায় চাঁদের বিলাসিতা হৃদয়ের গহীনে গহীনে,
    বেহালা সুরে স্মৃতির প্রজাপতি নিরুদ্দেশ উড়ে যায়
    কবিতার পঙতি আজ মেঘেদের পাখায়।
    আমি হায় ভিনগ্রহে রঙিন ছবি এঁকে চলেছি মনের খাতায়,
    মেঘের পাপড়িতে ভর করে উল্থান-পতনে ঘোরাই লাটাই।
    শূন্যতার মাঝে শূন্য খুঁজে, আকাশের যোনিতে লুটাই পাখা;
    শ্রাবণের মেঠো ফুলে রাখিনি হাত, শিউলীতেও হয়নি আঁকা;
    তাই অনুশোচনার জোয়ারে ঈশ্বর থেকে হয়েছি ছাটাই।
    বিবর্ণ স্মৃতিগুলো নীলাকাশের বুক চিরে ছেঁড়া ছেঁড়া মেঘ হয়ে ভেসে যায়
    শরতের কাশবনের রঙ যেন কাফনের বেশে আমাকে জড়ায়।

    আকাশ

    স্বপ্নে বিভোর শরতের রাত জ্যোৎস্না ভাঙে বুকের পাঁজর,
    নীরবতা ভেঙে অভিসারী হয় কাঙ্খিত বাতাস;
    ছুঁয়ে ছুঁয়ে রঙধনু কুঠিরে আবেশী শ্রাবণী ধারা,
    সীমারেখা এঁকে ভেঙে দেয় পাখির পালক।

    জল ভালবাসায় সুদূর অতীত চাহনি,
    কৈশোরের ভাঁজে ভাঁজে কিশোরী মুখ,
    চাঁদনী রাতে নিদ্রাদেবী খেলে পলানটুক।
    শ্বেত সাম্পানে হেঁটে যায় স্কুলের পথে,
    স্মৃতির রথে চলি আমি জ্যোৎস্না এ রাতে,
    আকাশ চাঁদে নিঃশব্দ কষ্টধ্বনি।

    বেহালা সুরে অভিমানগুলো শব্দবুননে
    নেমেছে আঁধারের ঠিকানায়, হেঁটেছি অভিরাম;
    স্মৃতির ক্যানভাস এঁকে চলেছে, শূন্যের পাতায়
    শঙ্খচিলের পালক ভাঙা শিশিরে শরতের খাতায়।

    চোখ

    সিঁড়ি ভেঙে স্মৃতির ধূসরতা নামে গোধূলী মাঠে
    মাধবী ঠোঁটের উষ্ণতায় সব হয়ে যায় তামাটে।
    শরতের পোয়াল শুকানো গন্ধে অজস্র পাণ্ডুলিপি
    আকাশের কোলে ছুঁয়ে ছুঁয়ে পুনর্জন্ম পায়,
    সমুদ্রস্নানে নিঃসঙ্গতার স্বাধ ছড়িয়েছে দুপুরে
    শরতের লুকোচুরিতে বার বার জ্যোৎস্না হারায়।
    নির্জন বাতাসে বিভোর আমি গোপন ষড়যন্ত্রে
    চাঁদ ধরি, জ্যোৎস্না ভোগের প্রত্যাশায়।
    পূর্ণিমা আজ মেঘে মেঘে লুকোচুরি খেলে,
    স্মৃতি তাই স্বপ্ন হয়ে দু’পায়ে চলে পাখা মেলে।
    জীবনের ভাঁজে ভাঁজে সে যেন বিলচোরা পাখি
    পুস্পিত সে অভিমান-অভিনয় লুকিয়ে রাখি;
    খুঁজি শুধুই নিদ্রাহীন ক্লান্তিতে ভরা সে চোখ
    ছলনায় ছল-ছল ছলনাময়ী যে চোখ।

    Spread the love
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •