প্রবন্ধে রতন বসাক

0
23
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এখনই সচেতন না হলে আগামীতে ভয়ংকর পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হবে !

কয়েক যুগ আগেও এই কথাটা শোনা যেত না, যেটা আজকাল প্রায়শই শোনা যাচ্ছে । মানুষের মুখে মুখে শোনা যাবেই বা না কেন ? এর উপরেই যে আমাদের অস্তিত্ব নির্ভর করছে । আগামী দিনে আমাদের প্রত্যেককেই এক ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হবে এর ফলে । তাই সময় এসেই গেছে এর প্রতিকার আমাদের সবাইকে একসাথে মিলে করার জন্য । সেটা হলো ” বিশ্ব উষ্ণায়ন । “
বিজ্ঞান এটা প্রমাণ করেছে এবং আমরা সবাই জানি যে এই পৃথিবীতে তিন ভাগ জল আর এক ভাগ স্থল আছে । সেই বিশাল পরিমাণ জলের বেশিরভাগটাই বরফ হয়ে জমে আছে । তাই আজও এক ভাগ স্থল আমরা উপভোগ করতে পারছি । আমাদের ভেবে দেখা উচিত সেই বরফ যদি গলে জল হয়ে যায়, তাহলে আমরা কোথায় থাকবো ? জলজ প্রাণীর হয়ত বেঁচে যাবে আর আমরা যারা স্থলে থাকি, তারা কি বাঁচতে পারব জলের মধ্যে ?
হ্যাঁ আমরা নির্বিচারে বৃক্ষ ছেদন করে চলেছি একের পর এক নিজেদের স্বার্থে শহর তৈরি করার জন্য । প্রকৃতির কথা একবারও ভাবছি না আমরা কেউই । এই পৃথিবীতে সবুজের আচ্ছাদন কম হয়ে যাওয়ার জন্যই আজকাল বৃষ্টিপাত ঠিকমতো হচ্ছে না কিংবা অনেক কম হচ্ছে । ফলে পরিবেশ দূষণ ও উষ্ণতার পরিমাণ বেড়েই চলেছে দিনে দিনে । এই দেখুন না ভরা শ্রাবণ মাসেও এখনো পর্যন্ত আকাশে মেঘের দেখা নেই আর না জানি বৃষ্টি কোথায় চলে গেছে !
তাই আর দেরি না করে নিজেদের টিকিয়ে রাখার জন্যই আসুন বিশ্ব উষ্ণায়ন কম করার জন্য কিছু কাজ করি সবাই মিলে । চলুন যেখানেই ফাঁকা জায়গা পাবো সেখানেই একটা যেকোন বৃক্ষ লাগাই আজ থেকেই । মোটরযান ব্যবহার কম করে দিই । আমরা যে যেখানেই থাকি না কেন তার আশপাশ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখি । আর কঠোরভাবে আইন করা হোক সরকারের তরফ থেকে যাতে কল কারখানাগুলো পরিবেশ দূষণ করতে না পারে । আর চলুন পরিবেশের কথা অজ্ঞ মানুষদের বোঝাই ।
বিশ্ব উষ্ণায়ন সত্যিই মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে আজকের যুগে সবার । কেননা বিজ্ঞানীরা প্রমাণ করেছেন যে সমুদ্রের জলের উচ্চতার পরিমান অনেকটাই বেড়ে গেছে ইতিমধ্যে । আর জমা বরফ ইতিমধ্যেই গলতে শুরু করেছে বিশ্ব উষ্ণায়নের জন্য । আমরা যদি এর প্রতিকার না করে চুপচাপ বসে থাকি ।তাহলে সামনে এক ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির সম্মুখীন আমাদের সবাইকেই হতে হবে ।
তাই আসুন নির্দ্বিধায় প্রকৃতিকে ভালোবাসি আর প্রকৃতিকে বাঁচাই নিজেদের স্বার্থেই ।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •