সাতে পাঁচে কবিতায় শুভ্রজিৎ চোংদার

    0
    13
    Spread the love
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  

    সুন্দরী

    সকাল ঝোঁকে; এলোমেলো হওয়া চুল পিঠে ফেলে,
    চোখ মুখ ফুলিয়ে ঘুমের জড়তা নিয়ে
    যখন তুমি, পুকুর ঘাটের দিকে এগিয়ে যাও;
    তখন তোমায় সুন্দরী লাগে।
    কিংবা ফেরার সময়; কাঁখে জলপূর্ণ কলসী ধরে,
    মাথায় আধখানা ঘোমটার মতো করে কাপড় টেনে
    যখন তুমি, টলমল পায়ে কোমর দুলিয়ে হেঁটে যাও;
    তখন তোমায় সুন্দরী লাগে।
    কিংবা একটু দুপুরে; স্নান সেরে,
    অন্তর্বাসহীন অবস্থায়, ভিজে কাপড় গায়ে জড়িয়ে
    যখন তুমি, বাড়ীর পথে হাঁটা লাগাও;
    তখন তোমায় সুন্দরী লাগে।
    কিংবা পড়ন্ত বিকেলে; গোধূলির আলোয়,
    ছাদে বসে, কতবেল মাখা খেতে খেতে
    যখন তুমি, খোশগল্পে মেতে থাকো;
    তখন তোমায় সুন্দরী লাগে।
    কিংবা প্রচণ্ড পরিশ্রমের পর; ‘অপ্রস্তুত’ বস্ত্রের আবরণে,
    চুল খোঁপা করে মাথার উপর তুলে নিয়ে
    যখন তুমি, পাখার হাওয়ার মিষ্টতা আস্বাদন করতে থাকো;
    তখন তোমায় সুন্দরী লাগে।
    কিংবা রাতের বিছানায়; আমার বুক ঘেঁষে শুয়ে,
    সারা দিনের চরম পরিশ্রান্তি ও ক্লান্তি পরেও
    যখন তুমি, কষ্ট লুকিয়ে ভালো থাকার অভিনয় করো;
    তখন তোমায় সুন্দরী লাগে।
    কিংবা আমার অনুভূতিতে; স্মৃতির পাতা থেকে,
    তোমার টুকরো ছবি নিয়ে, আমার কল্পনায়
    যখন তোমায়, নতুন করে সাজাই;
    তখনও তোমায় সুন্দরী লাগে।
    প্রতি মূহুর্তে তোমায় সুন্দরী লাগে।
    অনুভূতির প্রতি পাতায় তোমায় সুন্দরী লাগে।
    কল্পনার জগতেও তোমায় সুন্দরী লাগে।
    হ্যাঁ! তুমি সুন্দরী, তুমি আমারই সুন্দরী।।

    Spread the love
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •  
    •