লক্ষ্মীর নব্য পাঁচালী-তে শর্মিষ্ঠা ঘোষ

    0
    5
    Spread the love

    শ্রী শ্রী কন্যালক্ষ্মী বাঁচাও ব্রতকথা 

    শুন শুন পুরনারী বাঁচিতে যদি চাও।
    কন্যারত্ন যত্ন করে পৃথিবী বাঁচাও।।
    এ ধরণী লক্ষ্মীমন্ত এ যদি প্রত্যয়।
    কন্যাভ্রূণ হত্যা কেন বন্ধ নাহি হয়।।
    বিবাহকালে যৌতুক দেয় পিতা মাতা তারি।
    কন্যা সন্তান জন্ম দিলে পতি যায় ছাড়ি।।
    কন্যা জন্ম হতে লাগে দুইখানা এক্স।
    পিতা হতে প্রাপ্ত সেই ক্রোমোজোম নির্দেশ।।
    নারী বক্ষে স্তন্য পানে বাড়িল যে ছেলে।
    মাতৃগর্ভ জন্ম ঋণ ভুলিল কেমনে।।
    হে বিধাতা স্বয়ংসিদ্ধা সুমতি ফেরাও।
    আত্মঘাতে জগৎ ধ্বংস সেকথা বোঝাও।।
    মাতৃকুল না রাখিলে জন্ম হবে কার।
    কেবা পুত্র কেবা পিতা পতি কোথাকার।।
    সৃষ্টি স্থিতি লয় ক্ষয় সকলি নির্ভর।
    পুরান কোরান খৃষ্টমত যাহে কর ভর।।
    ইভ বল দুর্গা বল যা তোমার ভাষা।
    নারী বিনা প্রাণীবিশ্ব ফাঁপা সর্বনাশা।।
    এ ভারতে দেবী মাতা পূজিতা হন বটে।
    একাত্তর লাখ কন্যা মরে ছয় না পুরিতে।।
    প্রথম সন্তান কন্যা হলে দ্বিতীয়টি বোঝা।
    লিঙ্গ বিচার যন্ত্রে ইহা নির্ধারণ সোজা।।
    তিন দশকে এক কোটি কুড়ি লক্ষ মেয়ে।
    জন্ম পূর্বে মরে গেছে কন্যা পরিচয়ে।।
    অনুপাত শোচনীয় পুত্র তুলনায়।
    দু দশকে ষাট লক্ষ পুত্র বেশী হয়।।
    কন্যা হলে খরচা কম সরকারী খাতে।
    তাও নিত্য কন্যা খুন বাড়তেই থাকে।।
    মাও নাকি বাধ্য হয়ে সাথ দেয় কাজে।
    হে বিধাতা কোথা যাব পাষাণ সমাজে।।
    প্রতি হাজার ছেলে প্রতি মেয়ে হ্রাসমান।
    সভ্যতার রথ চক্রে শোচনীয় স্থান।।
    আইন আছে নানাবিধ তাতে নানা ফাঁক।
    হিসেবশাস্ত্র গোঁজামিলে ভরা দূর্বিপাক।।
    ভ্রূণহত্যা অধিকাংশ নালিশ না হয়।
    অনেকেই জেনেশুনে কুলুপ এঁটে রয়।।
    অশিক্ষা দারিদ্র পণ একমাত্র নয় ।
    পিতৃতন্ত্র বংশরক্ষা নানাবিধ ভয়।।
    রৌরব নরককথা শাস্ত্রসম্মত।
    মুখাগ্নি না জোটে যদি পুত্র হস্তধৃত।।
    মিহির খনা কিস্যা সেও লজ্জা ইতিহাস।
    মনুবাক্য পাল্টে দিতে করহ প্রয়াস।।
    ভাব দেখি এক পৃথিবী রস কিবা তার।
    ইভ বিনা আদমের আদিম হাহাকার।।
    সবলা আত্মজ্ঞানী  যেই নারী হয়।
    পাহাড় সাগর তার আগে বাধা মাত্র নয়।।
    বিদ্যাসাগর রামমোহনের ধন্য এই দেশ।
    নারী হাতে নারী ক্লেশ আগে কর শেষ।।
    জন্ম মোটে মন্দ নয় মন্দ সমাজপতি।
    মিথ ভাঙ শুদ্ধ হও নাহি তাতে ক্ষতি।।
    বিবাহ মোক্ষ নহে পরাও মানুষসাজ।
    বংশরক্ষা নহে তার একমাত্র কাজ।।
    রমণী রমণপ্রিয় শুধুমাত্র নয়।
    মানুষ প্রথমে তাকে ভাবিও নিশ্চয়।।
    তার দাবী কান্না হাসি আলাদা বা কিসে।
    সমান আদর দিও পুত্রটির পাশে।।
    নারীরক্ষা নারী দ্বারা সহজভাবে হয়।
    আত্মবিশ্বাস মর্যাদা যদি সে শেখায়।।
    শিক্ষা দাও ঘর থেকে তার পরে বার।
    মা জননী চোখ খোল পুত্রের তোমার।।
    নারী বিনা কোথা পাবে মনের দোসর।
    একপক্ষে পঙ্গু পাখি মিথ্যা স্বয়ম্বর।।
    ন্যায়শাস্ত্র যুদ্ধক্ষেত্র কোথা বেমানান।
    প্রমাণিত সমদক্ষ যদি পায় স্থান।।
    খেলকুঁদ বিনোদন শিক্ষা সংস্কৃতি।
    কোথা বল পশ্চাদপদ কোথা রুদ্ধগতি।।
    দেশ আমার ঊর্ধ্বশির কন্যার কারণ।
    গল্প পদ্য নহে এতো সত্য বিবরণ।।
    বেলাশেষে পুত্রটি যষ্ঠি যদি হয়।
    ভরসা রাখ সৎকন্যা কম কিছু নয়।।
    কন্যাভ্রূণ হত্যা বন্ধে মা মেনকার রায়।
    গর্ভবতী ভ্রূণ বিচার করহ নিশ্চয়।।
    নিবন্ধিত হলে সব ভ্রূণের বিবরণ।
    হত্যাযজ্ঞে হঠবে পিছু দুষ্ট জনগণ।।
    দুঃখ এবে এই বিল পাস নাহি হোল।
    ছিয়ানব্বই সনে যাহা বন্ধ হয়েছিল।।
    বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও স্লোগান মাত্র নয়।
    মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন সুনিশ্চয়।।
    কন্যাশ্রী রূপশ্রী এর বঙ্গদেশে নাম।
    উদ্দেশ্য যদিও এক বদলে নামধাম।।
    সরকার কঠোর হোন সাথে অনুভবী।
    নারীর সংখ্যা বৃদ্ধি দরকার খুবই।।
    জন্ম কর্ম বিবাহতে নারী স্বাধিকার।
    রক্ষা হোক ন্যায়মতো রুখে অনাচার।।
    উদ্দেশ্য সিদ্ধ হবে কন্যা বেঁচে রবে।
    তা না হলে প্রকল্প সব মাঠে মারা যাবে।।
    যদি ধর্ম সত্য হয় সত্য রক্ষা কর।
    বন্ধ কর ভ্রূণহত্যা জয় কন্যা বল।।
    ঘরে ঘরে এ পাঁচালী রোজ পড়া হোক।
    লোক শিক্ষা প্রসারিলে বাড়ে প্রতিরোধ।।
    ইতি শ্রী শ্রী কন্যাভ্রূণ বাঁচাও পাঁচালী সমাপ্তম্ ।।

    প্রণাম মন্ত্রঃ

    জয় জয় কন্যালক্ষ্মীর জয় জয় বল।
    তিল তুলসী সত্যি হলে হাতে নিয়ে বল।।
    তুমি যাকে রাখ ভালো সে রাখে তোমায়।
    স্নেহে দিও ফুঁ শঙ্খে ভালোবাসাময়।।
    দীপ জ্বেল মঙ্গলার্থে  পরমায়ু হোক।
    ঘট যথা সংসারেতে কল্যাণী অশোক।।

     


    Spread the love