উৎসব সংখ্যায় কবিতা – সঞ্চিতা বটব্যাল

    0
    8
    Spread the love

    একটা মেয়ে

    যে মেয়েটা উচ্ছৃঙ্খল,কথায় কথায় কাঁদতো আগে।
    সেই মেয়েটাই কাজল চোখে,হাজার হাজার রাত্রি জাগে।
    যে মেয়েটা সুখ বুনেছে,অন্ধকারে রাত জেগে রোজ।
    সেই মেয়েটাই রাস্তার ধারে,করছে কোন প্রেমিকের খোঁজ।
    যে মেয়েটা ভাইকে আগে,আগলাতো খুব যত্ন করে।
    সেই মেয়েটাই ভাইয়ের নামে,কেমন যেন গুমরে মরে।
    যে মেয়েটা মন খুলে রোজ, খিলখিলিয়ে হাসতো মিঠে।
    সেই মেয়েটাই লুকোয় কালশিটে দাগ,সদ্য পড়া নরম পিঠে।
    যে মেয়েটা ভাবতো আগে,প্রান ভরে কত বাঁচার কথা।
    সেই মেয়েটাই মরতে চায় রোজ,শুধু লুকোবে বলে নিজের ব্যথা।
    এখন মেয়েটা গোপন রাখে,নিজের পাওয়া কষ্ট যত।
    এখন মেয়েটা একাই থাকে,নিজের মত ব্যক্তিগত।
    মেয়েটা আদতে কেউ ছিল না,কষ্টগুলোর প্রতীকী ছাড়া।
    আজকে যে মেয়েটা বন্দি আছে,কালকে হবে বাঁধন হারা।

    Spread the love