সুবীর সরকারের কবিতা

    0
    11
    কবি সুবীর সরকার. জন্ম 1970এ. বাংলা কবিতায় নয়ের দশকে লিখতে আসেন. কবি উত্তরের লোকজীবনের সাথে জড়িয়ে আছেন তীব্র ভাবে. ত্রিশ বছরের বেশী সময় ধরে কবিতা গদ্য সহ বিভিন্ন ধারায় অনায়াস যাতায়াত করেছেন. উল্লেখযোগ্য বহু কাজের স্রষ্টা এ কবি তরুণ কবিদের পরম বন্ধু. বাংলা ভাষার প্রায় সব কাগজে নিয়মিত লেখালিখি করেছেন, করছেন তিনি. 1996সালে তাঁর প্রথম কবিতার বই যাপনচিত্র, প্রকাশিত হয় কবিতা পাক্ষিক থেকে. 2019এ সাম্প্রতিক কবিতা বইটি আলোপৃথিবী প্রকাশনীর লোকসংগীত শুনি. গুরুত্বপূর্ণ কবিতা ও গদ্যের বইগুলো - ধানবাড়ি গানবাড়ি, মাহুত বন্ধু রে, নির্বাচিত কবিতা, বিবাহ বাজনা, নাচঘর, উত্তরজনপদবৃত্তান্ত, মাতব্বর বৃত্তান্ত, ভাঙা সেতুর গান. কবির কিছু বই অনুবাদেও পেয়েছেন পাঠক. পেশায় শিক্ষক কবি ভালবাসেন রবিশস্যের খামার বাড়ি, সাদা ঘোড়া আর যৌথ যাপনে চাঁদের আলোয় কবিতা আড্ডা, লোকগানের আমেজ.
    Spread the love

    শ্লোক

    মরণঘোর পেরিয়ে মরণঘোরেই মিশে যাওয়া

    ইন্তেকাল লিখে রাখা চারধারে

    ভারসাম্য হারিয়ে ফেলছে আমার শরীর

    রক্তে ভেসে যাওয়া পাকস্থলী নিয়ে গটগট

                                                        হেঁটে যাই

    আমার প্রিয় ঋতুর নাম বিষাদ

    আমার প্রিয় বন্ধুর নাম ভরসন্ধ্যে

    সর্দি ও কাশির কনভয়

    সব ও সমস্ত গোপন অসুখ

    মিনিবাসের জানালায় আমি মেয়েদের ঘুমোতে

                                                                        দেখি

    শিরস্ত্রান নামিয়ে রাখবার পর দেখি শ্লোক

                                                          জাগছে

    এগারো মাইল লম্বা ফরেষ্টে এবার উইক এন্ড

                                                              কাটাবো

    হয়তো খুঁজে পাবো শেষপর্যন্ত নাকের

                                                     নোলক

    তোমার বামহাত আমার কাছে বিষ্ময়

    তোমার ডান বাহু আমার কাছে মহামড়ক

    মৃত্যু অপেক্ষায় থাকে

    জীবন্ত চুল্লি অপেক্ষায় থাকে

    মৃত মুখে হলুদ জমলে কেউ কেউ অনুবাদ

                                                       করে কান্না

    আমি মৃত্যুকে সংগীত ভেবে ওড়াতে থাকি

                                                             ফানুস

    আমি জলের গ্লাস উলটে দিই

    মৃত্যুর জন্য আজ একটু অট্টহাসি

    মৃত্যুর দিকে ছুড়ে দিই স্বরবর্ণের মত

                                                       রোদ

    আমার চোখে জল দেখে কেমন

    চমকে উঠেছিলে

                        তুমি

    মরণের পরেও খুব থেকে যাবো

    তোমাকে জ্যামিতি শেখাবো

    হাইরোডে দাঁড়িয়ে মৃত্যুর সাথে খুব আড্ডা

                                                                 দেব

    গুলিবর্ষণ পেরিয়ে আবার শীত ঢুকবে আমার

                                                                   শহরে

    হা হা হাসির মত মৃত্যু ঢুকবে আমাদের

                                                         শহরে


    Spread the love