কবিতায় বিদ্যুৎ রাজগুরু 

দাগের বাইরে  

কূপের ভিতর তৃষিত ঠোঁট
নিজের মুখ দেখি
ছোট উঠোন খুব তরিবত
নিজের মতো বাঁচি।
খরচ হয় সময় আমার
হাঁপিয়ে উঠি একা
গলির মাথায় আকাশ খুঁজি
আমি ভীষণ বোকা।
চেনা মুখের বাসি কথা
বমির মতো উগরে এখন ওঠে
আমার সাধের বারান্দাতে
ছায়ার মতো সোনার হরিণ ছোটে।
দৈত্য আসে রাতবিরেতে
তবুও আমি সুখী
সদর দরজা খুলেই আমি
চাঁদের মুখ দেখি।
চু -কিত- কিত খেলব বলে
হারিয়ে যাওয়া খোলামকুচি খুঁজি
দাগের বাইরে পা বাড়ালেই
আউট হব বুঝি ।
Spread the love

You may also like...

error: Content is protected !!